নতুন একাউন্ট তৈরী

জিমেইলের নতুন একাউন্ট তৈরী

Email Meaning Electronic Mail, যার অর্থ ডিজিটাল তথ্য বা বার্তা। ১৯৭২ সালে সর্বপ্রথম ইমেইল প্রেরণ করা হয়। কম্পিউটার থেকে মেইল পাঠানোর জন্য ইন্টারনেট সংযোগ এর প্রয়োজন হয়। নতুন একাউন্ট তৈরী করে, Arpanet-এ সর্বপ্রথম ইমেইল প্রেরণ করা হয়।

একটি নতুন গুগল একাউন্ট, গুগলের সকল প্রোডাক্ট ব্যবহারের অ্যাক্সেস দিবে। গুগল একাউন্ট বলতে মূলত একটি জিমেইল একাউন্টকেই বুঝায়। নতুন জিমেইল একাউন্ট তৈরি করুন। এই গুগল একাউন্ট তৈরি করে, ইমেইল পাঠাতে পারবেন। অন্যদের থেকে ইমেইল পাবেন। এছাড়া ফেসবুক, ইউটিউব, গুগল ম্যাপ, গুগল ডকস, গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড, গুগল ব্লগারসহ প্রায় গুগলের ১৫ প্রোডাক্টের সেবা নিতে পারবেন।

ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম জেনে কার্ড সংগ্রহ করুন।

ডিজিটাল মার্কেটি কি

জিমেইল হলো গুগলের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। জিমেইল বর্তমান বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় ইমেইল প্ল্যাটফর্ম। জিমেইল মোবাইল ব্যবহার উপযোগী করে তৈরি। জিমেইল এর ব্যবহার মানুষের জীবনকে সহজতর করেছে। যেকোন তথ্য আদান-প্রদানের জন্য ইমেইল ব্যবহার করা হয়।

গুগলে প্রায় সকল প্রোডাক্টের মতো ইমেইল একাউন্ট ফ্রিতেই করতে পারবেন। তাহলে আসুন আর কথা না বাড়িয়ে গুগল একাউন্ট করার প্রসেস, এবং এটার সুবিধাসমূহ নিয়ে আলোচনা করি।

আরো পড়ুন: ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম জেনে কার্ড সংগ্রহ করুন

গুগল একাউন্ট তৈরী:

Step-1: গুগল একাউন্ট তৈরি করার জন্য একটি ব্রাউজার থেকে জিমেইল লিখে সার্চ দিন। এবার আপনার সামনে জিমেইল এর ওয়েবসাইট চলে আসবে। এই ওয়েবসাইটে ক্লিক করুন। এবার আপনাকে বাছাই করতে হবে; কার জন্য জিমেইল একাউন্ট খুলতে চান। দুটি অপশন পাবেন, যেমন:

আমার নিজের জন্য;

আমার ব্যবসার ম্যানেজ করার জন্য;

লক্ষণীয় বিষয়: যখন নিজের ব্যবসার জন্য গুগল একাউন্ট তৈরি করবেন, তখন আপনি নিজের ইচ্ছামতো সেটিং করতে পারবেন। আপনার বিজনেস ইমেইল এর জন্য বিজনেস প্রোফাইল তৈরি করতে পারবেন। এর ফলে আপনার ইমেইল একাউন্টটি সহজেই খুঁজে পাওয়া যাবে। তাছাড়া আপনার অনলাইন ব্যবসাকে সহজ করে দিবে। খুব সহজেই আপনার তথ্য ম্যানেজ করতে পারবনে। ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স সর্ম্পকে জানতে পড়ুন।

Advice: আপনার গুগল একাউন্ট খুলার জন্য জিমেইল একাউন্ট লাগবেই এমন নয়। যেকোনো একটি ইমেইল আইডি হলেই হবে।

  • শুরুতে আপনাকে Google Account sign in Page-এ যেতে হবে।
  • নতুন একাউন্ট তৈরী করুন; এই Button-এ ক্লিক করুন।
  • এবার আপনার নাম লিখতে হবে।
  • এরপর “ইউজার” এর ইউনিক নাম দিতে হবে।
  • একটি Strong Password use করতে হবে। Strong Password এর উদাহরণ: $#Mygoogle20#$ এমন একটি পার্সওয়ার্ড ব্যবহার করতে পারেন।
  • এরপর Confirm Password দিয়ে দিন।
  • এরপর Next Button এ ক্লিক করুন।
  • এবার আপনার জন্য ঐচ্ছিক একটি ব্যাপার আছে। জিমেইল একাউন্ট ভেরিফাই করার জন্য একটি মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। এবং ভেরিফাই করুন।
  • এরপর আবার Next Button-এ ক্লিক করুন।
  • আপনি যে‘ইউজার’ নাম দিয়েছেন সেটা নাথাকলে, আপনি নতুন একাউন্ট তৈরী করতে পারবেন না।
  • Used Username-নিতে পারবেন না।
  • Used Username-এর সাথে মিল আছে এমন ইউজার নেম নিতে পারবেন না।
  • উদাহরণস্বরুপ: [email protected] এই জিমেইল এর “ইউজারনেম” নিতে পারবেন না।
  • আবার, [email protected] এই “ইউজারনেম” নিতে পারবেন না।
  • আবার এমন ইউজারনেম ব্যবহার করতে পারবেন না, যে ইউজারনেম দিয়ে জিমেইল এর নতুন একাউন্ট তৈরি করা হয়েছিল। পরে মুছে ফেলা হয়েছিল। এমনটাও নিতে পারবেন না।
  • যেগুলো গুগল ইতোমধ্যে সংরক্ষিত রেখেছে। এমন ওয়ার্ড ব্যবহার করে “ইউজারনেম” তৈরি করতে পারবেন না।  

বর্তমানে থাকা জিমেইল একাউন্ট দিয়ে নতুন একাউন্ট তৈরী:

নতুন একাউন্ট তৈরি করার উপায়

আপনার বর্তমানে একটি জিমেইল একাউন্ট আছে। এমন একটি জিমেইল একাউন্ট ব্যবহার করে নতুন একাউন্ট তৈরী করুন। আসুন দেখে নিই। কিভাবে বর্তমানে থাকা জিমেইল একাউন্ট দিয়ে নতুন একাউন্ট তৈরী করা যায়। ইমেইল মার্কেটিং কি।

  • শুরুতে আপনাকে Google Account sign in Page-এ যেতে হবে।
  • নতুন একাউন্ট তৈরী করুন; এই Button-এ ক্লিক করুন।
  • এবার আপনার নাম লিখতে হবে।
  • এবার আপনার বর্তমান ইমেইল একাউন্ট ব্যবহার করবো। এটার বিকল্পে ক্লিক করতে হবে।
  • এবার আমাদের বর্তমানে থাকে ইমেইল আইডির নাম লিখতে হবে।
  • তারপর Next Button-এ ক্লিক করতে হবে।
  • এবার আমাদের বর্তমানে থাকা ইমেইলে একাউন্টে একটি কোড পাঠানো হবে। এই কোড ব্যবহার করে নতুন একাউন্টটি ভেরিফাই করতে হবে।
  • এবার আমাদের সামনে ভেরিফাইড অপশন চলে আসবে। ভেরিফাইড/ যাচাই করুন অপশনে ক্লিক করতে হবে। এবার আমরা নতুন একাউন্ট তৈরী করার প্রায় শেষ পর্যায়ে। পরের ধাপে একাউন্ট রিকাভারি সেটআপ করতে হবে।

নতুন একাউন্ট তৈরী করার পর “একাউন্ট রিকাভারি” সেট করতে হবে:

নতুন একাউন্ট তৈরী করেছেন। ব্যবহার করছেন। হঠাৎ পার্সওয়ার্ড ভুলে গেছেন। অথবা কেউ আপনার অনুমতিছাড়া নতুন একাউন্টে এক্সেস করছে। তাহলে পার্সওয়ার্ড পরিবর্তন করতে হবে। পার্সওয়ার্ড রিকাভারি করতে হবে। আর এই একাউন্ট উদ্ধার করার তথ্য, উদ্ধার করে ব্যক্তিগত তথ্য উদ্ধার করতে পারবেন। ২৪০ টাকা ফ্রি বিকাশ পেমেন্ট

  • নতুন একাউন্ট ফিরিয়ে আনার ব্যাকআপ ইমেইল এড করা:
  • একাউন্ট ফিরিয়ে আনার জন্য মোবাইল নাম্বার যোগ করা।
  • আপনার অ্যাকাউন্ট লক হওয়া থেকে বাঁচুন।

একটি নতুন একাউন্ট এর অনেক সবিধা:

একটি নতুন একাউন্ট তৈরী করার মধ্যে দিয়ে অনেকগুলো সুবিধাপ্রাপ্তী হবে। আসুন দেখে নেওয়া যাক। কি কি সুবিধা পাবো।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে ইনকাম/মনিটাইজেশনের শর্ত।

  • গুগলের সকল প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে পারবেন।
  • দ্রুত তথ্য আদান-প্রদান করতে পারবেন।
  • ইমেইল পাঠাতে এবং গ্রহণ করতে পারবেন।
  • ইউটিউব, গুগল প্লে স্টোর, গুগল ম্যাপ, ব্লগার, গুগল শিট, গুগল মাই বিজনেস, গুগল ট্রানসিলেটর ইত্যাদির মতো জনপ্রিয় প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে পারবনে।
  • জিমেইল-এর ইমেইলে এর মাধ্যমে ফ্রিতে ১৫ গিগাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ ব্যবহার করতে পারবনে।
  • জিমেইল গুগলের প্রোডাক্ট হওয়ায় বিশ্বাসযোগ্যতা অনেক বেশি।
  • একাধিক ইমেইল একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন।
  • সহজেই কাস্টমাইজ করা যায়।
  • বিজনেস সহজতর হবে।
  • সময় বাঁচবে।
  • কষ্ট লাগব হবে।

উপসংহার:

উপরের আলোচনা থেকে আমরা একটি নতুন একাউন্ট তৈরীর করার উপায় জানতে পারলাম। কিভাবে জিমেইল একাউন্টে ইমেইল রিকাভারি সেটিং করতে হয়। তারপর ইমেইল একাউন্ট এর সুবিধাসমূহ। আমাদের আজকের পোস্টটি যদি ভালোলাগে তাহলে, আমাদের সাইটটি ভিজিট করুন। আমাদের সাইট-এ এরকম আরো অনেক পোস্ট আছে। সাইটটি ভিজিট করার জন্য ধন্যবাদ। সূত্র: ইউটিউব শর্টস থেকে ইনকাম করার উপায়/ ভাইরাল শর্টস ভিডিও

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top