অনলাইন টাকা ইনকাম

অনলাইন টাকা ইনকাম করতে চাচ্ছেন। বেকার বসে না থেকে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা উচিৎ। বর্তমানে অনলাইনে প্রচুর কাজ আছে। ছাত্র-ছাত্রী থেকে গৃহিণী সবাই এই কাজ করতে পারেন। সরকারি বেসরকরী চাকুরিজীবীরাও করতে পারেন। প্রতিদিন ৩ থেকে ৫ ঘন্টা কাজ করুন। মাসে ১৫-২০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। ফ্রিল্যান্সি কিভাবে শিখবেন, এবং কাজ শুরু করবেন জনাতে পড়ুন।

অনলাইন টাকা ইনকাম:

অনলাইন টাকা ইনকাম কি? আমার মনে হয় সবাই জানেন। এই প্রশ্নের উত্তর সবার জানা। তবুও যারা জানেন না তাদের জন্য বলি। ঘরে বসে হাতের মোবাইল/ কম্পিউটার এবং ইন্টারনেটের সাহায্যে দেশ বিদেশের কোম্পানি প্রতিষ্ঠান ব্যক্তির সাথে চুক্তিভিত্তিক বা স্থায়ী ভিত্তিতে কাজ করে ইনকাম করাকেই অনলাইন টাকা ইনকাম বলা হয়। মাসে ৫০-হাজার টাকা ইনাকমের উপায় জানতে পড়ুন।

অনলাইন টাকা ইনকামের প্রয়োজনীয় উপকরণ:

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য কিছু উপকরণ প্রয়োজন। এসব উপকরণ থাকলে হবে। চাইলেই আপনিও পারবেন। শুরুতে ইনকাম সময় লাগবে। ইনকাম আসবে সময় লাগবে। হতাশ হবেন না। লেগে থাকতে হবে। তাহলে সফল হবেনই। অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য;

  • মোবাইল/ কম্পিউটার ডিভাইস থাকতে হবে।
  • একটি সচল মোবাইল নাম্বার লাগবে।
  • ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে।
  • একটি ইমেইল আইডি লাগবে।
  • অনলাইন নির্ভর যেসকল কাজ হয় তার ১-২টি স্কিল লাগবে।
  • আর আপনার ইচ্ছা থাকতে হবে।
  • প্রতিদিন ৩-৫ ঘন্ট সময় থাকতে হবে।

এসব উপকরণ থাকলে আপনি শুরুতে অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আর যদি স্কিলছাড়া সব থাকে তাহলে কিছু দিন স্কিল শিখতে হবে। ৩-৬ মাস সময় লাগবে। শিখতে কতো সময় লাগব তা আপনার উপর নির্ভর করছে। সবার একই সময় লাগে না। যতোটা আগ্রহের সাথে শিখবেন, ততোটা দ্রুত শিখবেন।

যেসব কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম:

যেসব কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়। এখন আমরা এক নজরে দেখব। অনলাইনে টাকা ইনকাম করার কিছু কাজ আছে। যেসব কাজ অনলাইন ভিত্তিক হয়ে থাকে। এসব কাজ শিখলে দ্রুত টাকা করতে পারবেন। আগামী কয়েকবছর যেসব কাজ ভালো করবে তাই আলোচনা করবো। এছাড়া ২০২৪ সালের সেরা অনলাইন নির্ভর কাজগুলোর আলোচনা করার চেষ্টা করবো। ২৪০ টাকা ফ্রি বিকাশ পেমন্ট পাবেন কিভাবে।

  • ফ্রিল্যান্সিং
  • ডিজিটাল মার্কেটিং
  • ফেসবুক মার্কেটিং
  • ইউটিউব মার্কেটিং
  • লিংকডইন মার্কেটিং
  • ইনসট্রাগ্রাম মার্কেটিং
  • SEO (Search Engine Optimization)
  • Email Marketing
  • Web Design
  • Graphics Design
  • Web Development
  • WordPress Theme Customization
  • Blogging
  • Guest Post Writing
  • Create Backlink
  • Content Writing
  • Citation
  • Create Google Review
  • Podcast Marketing

এরকম আরো প্রচুর কাজ আছে। মার্কেটপ্লেস ভিজিট করলে দেখবেন। কি পরিমাণ কাজ আছে। সবাই কতো কাজ করেন। অনলাইনে টাকা ইনকাম করেন। তবে সবার জার্নিটা শুরুতে সহজ ছিল না। আমরা আপনার মতোই ছিল। তারাও কষ্ট করেই আজকের অবস্থানে আসছেন। আপনিও পারবেন। যাইহোক উপরোল্লিখিত কাজ থেকে কিছু কাজ এবং মার্কেটপ্লেস নিয়ে আমরা আলোচনা করব।

ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইন টাকা ইনকাম:

শুরুতে বলি ফ্রিল্যান্সিং কোন কাজ নয়। এটি একটি প্রসেস মাত্র। গতানুগতিকধারার বাইরে গিয়ে কাজ করা। সকাল ৯-টা বিকেল ৫-টা পর্যন্ত একটি অফিসে একজন বসের আন্ডারে কাজ করা নয়। ফ্রিল্যান্সিং মূলত ঘরে বসে নিজের সুবিধামতো সময়ে দেশ বিদেশের এক বা একাধিক প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তিভিত্তিক বা স্থায়ীভিত্তিতে কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করাকেই বুঝায়। আর উপরে যেসব কাজ এর কথা উল্লেখ করেছি তা সব ফ্রিল্যান্সিং প্রক্রিয়ায় করা হয়।

ডিজিটাল মার্কেটিং করে অনলাইন টাকা ইনকাম:

ডিজিটাল মার্কেটিং আবার একটি নিশ। ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে আবার অনেক সাব-নিশ আছে। যেমন, ফেসবুক মার্কেটিং ইনসট্রাগ্রাম মার্কেটিং ইত্যাদি। এগুলোকে স্যোশাল মিডিয় মার্কেটিং নামে পরিচিত। এসব ডিজিটাল প্ল্যাটফমকে ভিত্তিকে মার্কেটিং করা হয় বলে একে ডিজিটাল মার্কেটিং বলা হয়।

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে ভালো করতে হলে, স্যোশাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ে ভালো করতে হবে। আপনার হাতের মোবাইল দিয়েই ডিজিটাল মার্কেটিং করে অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এবার আমরা একটি বিস্তারিত আলোচনা করবো।

ফেসবুক মার্কেটিং করে টাকা আয়:

ফেসবুক মার্কেটিং করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে চাইলে একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে। না থাকলে ফেসবুক পেজ তৈরী করুন। এবার পেজকে প্রফেশনালি সেটিং করুন। ফেসবুক মার্কেটিং মূলত ফেসবুকের মাধ্যমে কোন পণ্যের প্রচার করাকেই বুঝায়। কোনো কোম্পানির পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করা। বিনিময়ে টাকা আয় করাকেই বুঝায়। আরো বিস্তারিত জানতে ফেসবুক মার্কেটিং পোস্টটি পড়ুন। নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং, প্রথম কাজ পাওয়ার উপায়।

ইন্সট্রাগ্রাম মার্কেটিং করে টাকা আয়:

এটাও ফেসবুকের মতোই। ইন্সট্রাগ্রামও মূলত মেটার-ই একটি প্রতিষ্ঠান। ইন্সট্রাগ্রামে একটি প্রফেশনাল একাউন্ট থাকতে হবে। আপনার এই একাউন্ট নিয়মিত পোস্ট করতে হবে।

নিয়মিত পোস্ট করলে প্রফাইল গ্রো করবে। তখন প্রফাইলে অনেক ফলোয়ার হবে। ১০-হাজারের বেশি ফলোয়ার হবে। কোনো পোস্ট করলে ৫০০-১০০০ হাজার মানুষ লাইক কমেন্টস করেন।

তখন আপনার প্রফাইলে কোন পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করার জন্য আপনাকে হার্যার করবেন। একটি পণ্যের বিজ্ঞাপণ এক মাসের জন্য আপনার ইন্সট্রাগ্রাম প্রফাইলে পোস্ট থাকতে হবে।

এভাবে যখন পোস্ট করবেন তখন প্রতিটি পোস্টের জন্য আপনাকে টাকা প্রদান করা হবে। এভাবেই ইন্সট্রাগ্রাম মার্কেটিং করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

একই রকামভাবে লিংকডইন মার্কেটিং, পিনটারেস্ট মার্কেটিং করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ব্লগিং করে অনলাইন টাকা ইনকাম:

আপনার যদি লিখালিখিতে আগ্রহ থাকে, তাহলে ব্লগিং করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এখন সবাই স্মার্টফোন ব্যবহার করেন। স্যোশাল মিডিয়া ব্যবহার করেন। মানুষ স্যোশাল মিডিয়ার প্রচুর সময় ব্যয় করেন। ব্লগিং এর ভিজিটর অনেক। আপনি যদি ভালো লিখতে পারেন, অল্প কিছুদিনের মধ্যে অনলাইন টাকা ইনকাম শুরু করতে পারবেন।

শুরুতে একটু টাকা ব্যয় করতে হবে। একটি ডোমেইন ক্রয় করতে হবে। একটি থিম ক্রয় করতে হবে। সব মিলে ২-হাজার টাকা লাগবে। ১০-১৫টি পোস্ট লিখুন। প্রতিটি পোস্ট হাজার শব্দের মধ্যে রাখবেন। এগুলো সাইটে পোস্ট করুন। যখন সাইটে ভিজিটর আসবে।

সাইটকে মনিটাইজেশন এর জন্য আবেদন করুন। গুগল এডসেন্স ব্যবহার করুন। গুগল এডসেন্স ভালো পেইড করেন। এডসেন্স এপ্রুভাল হয়ে গেলে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এডসেন্স একাউন্ট তৈরি করুন। এডসেন্সে ১০০ ডলার জমা হলেই উত্তোলন করতে পারবেন। এভাবেই ব্লগিং করে অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কনটেন্ট রাইটিং করে টাকা ইনকাম:

শুরুতে টাকা খরচ নেই। টাকা খরচ করতে চান না। ডোমেইন হোস্টিং, থিম, গুগল সার্চ কনসোল, ব্যাকলিংক, গুগল এডসেন্স, ভিজিটর এসব ঝামেলায় যেতে চান না। তাহলে শুধু কনটেন্ট রাইটিং করেও অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ওয়েবসাইটে পোস্ট পাবলিশ করার জন্য কনটেন্ট রাইটারের প্রয়োজন হয়। বিজ্ঞাপনের জন্য কনটেন্ট রাইটারের প্রয়োজন হয়। আবার ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক তৈরি করার জন্য গেস্ট পোস্ট এর প্রয়োজন হয়। ব্যাকলিংক তৈরি করার জন্য গেস্ট পোস্ট খুবই জনপ্রিয়। তাই গেস্ট পোস্ট রাইটারদের চাহিদা ব্যাপক। প্রচুর চাহিদা থাকায়। চার্জ অনেক বেশি। তাই যদি ভালো লিখতে পারেন তাহলে কনটেন্ট রাইটিং করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ইউটিউবিং করে অনলাইন টাকা ইনকাম:

ভিডিও ধারণে শখ আছে। শখ করে ভিডিও এডিট করেন। তাহলে এই শখ হতে পারে আপনার ক্যারিয়ার। শখ করে ভিডিও ধারণ করে অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারেন। শুরু করতে পারেন ইউটিউবিং। একটি চ্যানেল তৈরি করুন। পছন্দের বিষয়ে ভিডিও তৈরি করু্ন। চ্যানেলে আপলোড করুন। চ্যানলে ভিউয়ার আসলে চ্যানেল গ্রো করবে।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে হলে ইউটিউব মনিটাইজেশনের শর্ত পূরণ করতে হবে। মনিটাইজেশনের শর্ত

১-বছরে ১-হাজার সাবসক্রাইবার এবং ৪-হাজার ঘন্টা ওয়াচটাইম।

চ্যানেল ২-স্টেফ ভেরিফিকেশন

কোন প্রকার স্ট্রাইক বা গাইডলাইনস স্ট্রাইক থাকতে পারবেন না।
এবং চ্যানেল রিভিয়ে পাস করতে হবে।

ইউটিউবে ভিডিও বানাতে না চাইলে কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য কাজ করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন। দেশে বিদেশে ভিডিও এডিটরদের অনেক কাজ। এই কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

সার্ভে করে অনলাইন টাকা ইনকাম:

তেমন কোন স্কিল না থাকলেও অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সামান্য কিছু প্রশ্নের উত্তর দিন। আর টাকা ইনকাম করুন। কি অবাক হচ্ছেন। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। অনলাইনে এমন অনেক সার্ভে প্রতিষ্ঠান আছে। তাদের প্রতিষ্ঠানে কাজ করুন। কাজ করার জন্য একটি ইমেইল দিয়ে একাউন্ট খুলুন। তারপর ড্যাশবোর্ড অফার দেখতে পাবেন। প্রতিদিন একটি দুটি সার্ভেতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। একটি সার্ভেতে কয়েকটি প্রশ্ন থাকে। এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। কিছুটা সময় লাগবে।

অনলাইনে কিছু পেইড সার্ভে প্রতিষ্ঠান আছে। চাইলেই এসব সার্ভে প্রতিষ্ঠান কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন টিউশনি করে অনলাইন টাকা ইনকাম:

আমার মনে হয় এই বিষয়ে এখন আর বলার কিছু নাই। কারণ সবাই জানেন। শুরু না করে থাকলে শুরু করে দিন। হ্যাঁ ভাই আপনাকে বলছি। যে বিষয়ে ভালো পারেন, সেই বিষয়ে শুরু করুন। শুরুতে কম স্টুডেন্ট থাকলে, সময়ের সাথে সাথে বাড়বে। ভালো পড়ালে তো কথাই নাই। একসাথে অনেক পড়াতে পারবেন। রুমভাড়া লাগবে না। শুধু একটি ভালো স্মার্টফোন বা কম্পিউটার লাগবে। এবং ভালো নেটওর্য়াক লগবে। এভাবেই অনলাইন টিউশনি করে অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়াও আরো কিছু উপায় আছে। আসুন দেখি উপায়গুলো। পরে এসব উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা আসবে।

  • অনলাইনে ছবি বিক্রয় করে অনলাইন টাকা ইনকাম;
  • ডাট্র এন্ট্রি করে অনলাইন টাকা ইনকাম;
  • ভার্চুয়াল সহকারির কাজ করুন;
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করুন
  • সিপিএ মার্কেটিং করে আয় করুন;
  • ভয়েসওভার আটিস্ট হয়ে অনলাইন টাকা ইনকাম করুন;
  • ওয়েবসাইট তৈরি করে অনলাইন ইনকাম;
  • ওয়েবসাইট এবং অ্যাপস টেস্টার হয়ে ইনকাম করতে পারেন;
  • ডোমেইন হোস্টিং রিসেলিং করে টাকা আয় করতে পারেন;
  • কিন্ডলে ই-বুকের মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস:

অনলাইন টাকা ইনকাম

অনলাইন টাকা ইনকাম করার জন্য যে কাজ তা পাবেন কোথায়? কাজ পাওয়ার জন্য মার্কেটপ্লেস আছে। আসুন কিছু জনপ্রয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর নাম উল্লেখ করছি। এসব মার্কেটপ্লেস ভিজিট করুন। এখানে একাউন্ট তৈরি করুন। কাজের চেষ্টা করুন। কাজ পেয়ে যাবেন। কাজ পেলেই অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

উপসংহার:

উপরের আলোচনা থেকে বলতে পারিযে, আজকের অনলাইন টাকা ইনকাকম এর উপায়গুলো থেকে যেটাই শিখুন টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আগামী কয়েক বছর প্রচুর চাহিদা থাকবে এসব কাজের। যদি কোন কাজে আগ্রহ থাকে তাহল শেখা শুরু করুন। যদি স্কিল থাকে তাহলে কাজ শুরু করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top